বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

শিরোনাম

শাশুড়ির মামলায় সাড়ে ৩ মাস পর পুত্রবধূর লাশ উত্তোলন

নিজস্ব প্রতিবেদক    |    ১১:৫৭ এএম, ২০২১-০৭-২৬

শাশুড়ির মামলায় সাড়ে ৩ মাস পর পুত্রবধূর লাশ উত্তোলন

সুধারামে (সদর) শাশুড়ির দায়ের করা হত্যা মামলায় দাফনের সাড়ে তিন মাস পর নিহত পুত্রবধূ মারজাহান বেগমের মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে।

রোববার (২৫ জুলাই) দুপুরে উপজেলার উত্তর শুল্লুকিয়া গ্রামের জগবন্ধুর বাড়ির পারিবারিক কবরস্থান থেকে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি তোলা হয়। গত ৩ এপ্রিল মারজাহান বেগম মারা যান।

মরদেহ উত্তোলনের সময় নোয়াখালী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তারিকুল ইসলামের নেতৃত্বে সুধারাম মডেল থানার পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তারিকুল ইসলাম জানান, আদালতের নির্দেশে সাড়ে তিন মাস পর গৃহবধূ মারজাহান বেগমের মরদেহ কবর থেকে উত্তোলন করে ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সুধারাম মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. নুরনবী জানান, সৎ ছেলে মো. সোহাগের স্ত্রী মারজাহান বেগমকে হত্যার অভিযোগে গত ১৬ জুন নোয়াখালীর আমলি আদালতে স্বামী আবদুল খালেক, সৎ ছেলে মো. সোহাগ ও রাজু এবং সৎ মেয়ের স্বামী জামাল উদ্দিনকে আসামি করে মামলা করেন নিহতের শাশুড়ি রহিমা বেগম। পরে ৬ জুলাই সৎ ছেলে সোহাগকে (৩০) গ্রেফতার করে পুলিশ।

রহিমা বেগমের দাবি, হত্যার বিষয়টি জানতে পেরে প্রতিবাদ করায় তাকে দুই মাসের বেশি সময় ঘরে আটকে রাখেন আসামিরা। পরে কৌশলে স্বামীর বাড়ি থেকে বের হয়ে আদালতে মামলাটি করেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, স্বামী, দুই সৎ ছেলে এবং পুত্রবধূ মারজাহান ও তার তিন শিশু সন্তান নিয়ে সদর উপজেলার উত্তর শুল্লুকিয়া গ্রামের রহিমা বেগমের সংসার। হত্যার কয়েক মাস আগে সোহাগের পরকীয়ার সম্পর্ক নিয়ে স্ত্রী মারজাহানের সঙ্গে পারিবারিক কলহ শুরু হয়। এ নিয়ে মারজাহানকে প্রায়ই শারীরিক নির্যাতনসহ মেরে ফেলার হুমকি দিতেন সোহাগ।

গত ৩ এপ্রিল দুপুরে পুত্রবধূ মারজাহানকে বাড়িতে রেখে বাবার বাড়ি যান রহিমা। মারজাহান বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন বলে রাত ২টায় মোবাইল ফোনে জানান স্বামী আবদুল খালেক। পরদিন সকালে বাড়িতে ফিরে তিনি জানতে পারেন সোহাগের পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় আসামিরা মারজাহানকে পিটিয়ে হত্যা করেছে।

রিটেলেড নিউজ

‘কোনো প্রতিষ্ঠান প্রধানের সঙ্গে দেখা হলো না’

‘কোনো প্রতিষ্ঠান প্রধানের সঙ্গে দেখা হলো না’

নিজস্ব প্রতিবেদক : চাটখিলে চারটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনে গিয়ে কোনো প্রতিষ্ঠানেই প্রধান শিক্ষককে পাননি উপজেলা ...বিস্তারিত


নোয়াখালীর ইউপি নির্বাচন: ৯টিতে নৌকা, ৪টিতে বিদ্রোহী প্রার্থীর জয়

নোয়াখালীর ইউপি নির্বাচন: ৯টিতে নৌকা, ৪টিতে বিদ্রোহী প্রার্থীর জয়

নিজস্ব প্রতিবেদক : নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়া ও সূবর্ণচরের ১৩ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফলে নৌক...বিস্তারিত


হাতিয়ায় জালভোট দিতে গিয়ে ২ প্রিসাইডিং অফিসার আটক

হাতিয়ায় জালভোট দিতে গিয়ে ২ প্রিসাইডিং অফিসার আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক : হাতিয়ায় জালভোট দেয়ার সময় দুই সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারকে হাতেনাতে আটক করেছে নির্বাহী ম্যাজিস্ট...বিস্তারিত


হাতিয়ায় ইউনিয়ন নির্বাচন: ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট বর্জন

হাতিয়ায় ইউনিয়ন নির্বাচন: ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট বর্জন

নিজস্ব প্রতিবেদক : হাতিয়ায় কেন্দ্র দখল, ভয়ভীতি প্রদর্শন এবং অনিয়মের অভিযোগে নৌকার দুই প্রার্থীসহ পাঁচ চেয়ারম্যান প্...বিস্তারিত


সোনাইমুড়ীতে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে চারজনের মৃত্যু, তদন্ত কমিটি

সোনাইমুড়ীতে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে চারজনের মৃত্যু, তদন্ত কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : সোনাইমুড়ীতে জমে থাকা বৃষ্টির পানিতে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে চারজনের মৃত্যুর ঘটনায় দুই সদস্যের একটি ...বিস্তারিত


বেগমগঞ্জে খালের পাশে মিলল নবজাতকের নিথর দেহ

বেগমগঞ্জে খালের পাশে মিলল নবজাতকের নিথর দেহ

নিজস্ব প্রতিবেদক : বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভার উত্তর নাজিরপুর থেকে কাপড়ে মোড়ানো এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করেছ...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

বেগমগঞ্জে কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেপ্তার ২

বেগমগঞ্জে কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেপ্তার ২

নিজস্ব প্রতিবেদক : নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগে দুই তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পু...বিস্তারিত


নোবিপ্রবিতে শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা 

নোবিপ্রবিতে শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা 

এস আহমেদ ফাহিম : নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর